আহমেদ নকীব

পোকা হয়ে যাবো

আমি যে মানুষ থেকে আজ পোকা হবো,
অথচ পোকারা সভা করে নিবে কিনা
এরকম স্যুটপরা লোকটাকে দলে

স্বামী তার রতিক্রিয়া ছেড়ে উড়ে যাবে 
পতংগের দলে, পাগল হয়েছে ভেবে
ডাক্তার ডাক্তার ডেকে একাকার সবে

কিভাবে লুকাবো মুখ আসবাব ঠেলে
চলেছি এবার তাই রক্তমাংস ফেলে

আমাকে পোকারা এখন হয়তো খাবে
শব ভেবে অন্ধকার ঝোপে, যার আজ
নেই কোনো চোখ আর মানুষের সাজ

 

গান গাবো বিজয়নগরে

ঝিঁঝিঁপোকা তোমাকে
কি যে রহস্যময় লাগে

ঝোপে বাজছে ঝুমঝুম

ছরতা দিয়ে ছ্যাতর ছ্যাত
শব্দ করলে তুমি ভাবো যে
তোমার জোড়া এসে দাঁড়ালো
লক্ষ্মীপুরের ছাদে

আর যদি প্রিয় সুপারি গাছ
থেকে নেমে কাছে আসো
আমিও একটা ঝিঁঝিঁ’র
মেয়ে হবো, আমার হাত
বাড়িয়ে দিবো তোমার
ঝিঁঝিঁ পাখার ঐকতানে

আমরা বাজাবো
শিখা’পার জার্মান রিডের
হারমোনিয়াম, যদিও
ছিঁড়া তানপুরা, একটা তারের,
সেও একসাথে সংগত
করতে এসে ঝিঁঝিঁ’র এক
প্রেমিক পুরুষ হবার লোভ
সামলাতে না পেরে আমাদের
গায়ে গা ঘেঁষে বসে পড়বে

ঝিঁঝিঁ তুমি কিন্তু লাজুক
হয়ে আবার উড়ে যেয়ো না

সবাই মিলে আমরা
ঝোপে ঝোপে তারস্বরে
গান গাবো বিজয়নগরে 

Advertisements